করোনাভাইরাস শনাক্তে সহায়তা করবে কুকুর!

0 209

শক্তিশালী ঘ্রাণ ক্ষমতা ব্যবহার করে কুকুর গোটা বিশ্বের আতঙ্ক প্রাণঘাতি নভেল করোনাভাইরাস শনাক্তে সহায়তা করতে পারে কিনা তা জানার লক্ষ্যে ‘মেডিকেল ডিটেকশন ডগস’ নামে ব্রিটিশ একটি দাতব্য সংস্থা উদ্যোগ নিয়েছে। এ লক্ষ্যে সংস্থাটি লন্ডন স্কুল অব হাইজিন অ্যান্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিন এবং উত্তরপূর্ব ইংল্যান্ডের ডুরহাম ইউনিভার্সিটির সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়েছে। সংস্থার কর্মকর্তাদের বরাতে শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা এএফপি।

কুকুরের শক্তিশালী ও ব্যতিক্রমী ঘ্রাণ সামর্থ্যের কথা কমবেশি সবারই জানা। নানান ঘটনার রহস্য উদঘাটনে স্নাইফার কুকুরের এক ধরনের সুনাম ও সুখ্যাতি রয়েছে। বিশেষ করে কুকুরের ঘ্রাণ শক্তি ব্যবহার করে ম্যালেরিয়া রোগ শনাক্তকরণে এর আগে গবেষণা হয়েছে। সেইসঙ্গে বৈজ্ঞানিক মহলে এক ধরনের ধারণা বিদ্যমান আছে যে প্রতিটি রোগের একটি স্বতন্ত্র ঘ্রাণ রয়েছে। এ দুটি বিষয়ের উপর ভিত্তি করেই করোনা রোগ শনাক্তে কুকুরের ঘ্রাণশক্তি ব্যবহার করার ওই উদ্যোগ নেয় ব্রিটিশ দাতব্য সংস্থাটি।

সংস্থার কর্মকর্তাদের বরাতে খবরে বলা হয়েছে, করোনার দ্রুত শনাক্তে সহায়তার জন্য ছয় সপ্তাহের মধ্যে কুকুর প্রশিক্ষণের লক্ষ্যে ইতিমধ্যে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন তারা।

নিচের স্টোরিটিও আপনার ভালো লাগতে পারে :

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে নিয়োগ

সংস্থাটি এর আগেও বিভিন্ন রোগ যেমন ক্যান্সার, পারকিনসন্স এবং ব্যাকটেরিয়াজনিত সংক্রমণ শনাক্তে কুকুরের ঘ্রাণ ক্ষমতা ব্যবহারের লক্ষ্যে তাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছে। এসব প্রশিক্ষিত কুকুর পরে রোগীর নমুনা শুকে শুকে সংশ্লিষ্ট রোগ শনাক্তের চেষ্টা করে। শুধু তাই নয়, সংস্থাটির প্রশিক্ষিত কুকুর শরীরের তাপমাত্রার সূক্ষ্মতম পরিবর্তনও ধরতে পারে যা কারও শরীরে জ্বর আছে কিনা তা নির্ণয়ে সম্ভবত এদেরকে বেশ দরকারি মাধ্যমে পরিণত করেছে।

এ প্রসঙ্গে সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ক্লেয়ার গেস্ট বলেন, ‘মৌলিকভাবে আমরা নিশ্চিত যে কুকুর হয়তো কোভিড-১৯ (করোনাভাইরাসের আনুষ্ঠানিক নাম) শনাক্ত করতে পারবে।’

এ কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘সম্ভাব্য কোনো রোগীর শরীর থেকে ভাইরাসের ঘ্রাণ আমরা কিভাবে নিরাপত্তার সঙ্গে সংগ্রহ করে তা প্রশিক্ষিত কুকুরের কাছে প্রদান করতে পারি এ ব্যাপারটি নিয়ে আমরা এখন কাজ করছি।’ এ পদ্ধতি সফল হলে সেটি করোনা রোগী শনাক্তে বেশ দ্রুত এবং কার্যকরী উপায় হবে বলেও যোগ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ খবর পর্যন্ত নভেল করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী প্রায় ছয় লাখ মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছেন অন্তত ২৭ হাজার।

Leave A Reply

Your email address will not be published.